ঢাকা, বৃহস্পতিবার ১৩ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

করোনায় সুস্থ হওয়া দুই ভাই বোন প্লাজমা দান করে মহৎত্তের পরিচয় দিলেন

 নিউজ রুমঃ Bijoy Bangla BD 24. COM

 প্রকাশিত: মে ৩০, ২০২০, ৯:৪৪

৩৮০ বার পঠিত

বিজয় বাংলা ডেস্ক: এরা দুইজন আপন ভাই-বোন। দুজনই করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। দুজনই সুস্থ হয়েছেন। সুস্থ হওয়ার পরপরই জানতে পারলেন তাদের শরীরের প্লাজমা দিলে অন্য করোনা রোগী ভালো হয়ে যাবে। এমন খবর শুনে আর দ্বিতীয়বার চিন্তা করেন নি তারা। সাথে সাথে প্লাজমা দিতে রাজি হয়ে যান, এবং দুজন অপর দুজন করোনায় আক্রান্তকে প্লাজমা প্রদান করেন। তারা দুজনও এখন সুস্থ হওয়ার পথে।

♦প্লাজমা কী?
♦কেন দিবেন প্লাজমা?
♦দিলে কি কোন লাভ হবে?
♦কে দিতে পারবেন, কখন দিবেন, অনেক প্রশ্ন?

প্লাজমা হলো রক্তের জলীয় অংশ। রক্তের কনিকা (লোহিত কনিকা, শ্বেত কনিকা ও অনুচক্রিকা) গুলো রক্ত থেকে আলাদা করলে যে জলীয় অংশ থাকে সেটাই প্লাজমা বা রক্তরস।

আর রক্তরসের উপাদান সমূহের মধ্যে এন্টিবডি নামক রোগ প্রতিরোধকারী উপাদান গুলি থাকে। কেউ যদি কোন রোগ থেকে সুস্থ্য হয়ে উঠেন তবে তার শরীরে সেই রোগের জন্য সুনির্দিষ্ট এন্টিবডি তৈরি হয়। এন্টিবডি হলো প্রোটিন কনা। এগুলো নানা রকমের হয়। কোনটা তৈরি হয় তাড়াতাড়ি কোনটা তৈরি হয় একটু ধীরে।

করোনায় আক্রান্ত রোগীর শরীরেও এই দুই ধরনের এন্টিবডি তৈরি হয়। তাই করোনায় আক্রান্ত রোগী সুস্থ হয়ে উঠার পরে যদি তার রক্তরস দান করেন, তবে তার রক্তে থাকা এন্টিবডি রোগীর শরীরে রেডিমেড এন্টিবডি হিসাবে কাজ করবে, ভাইরাসকে নিষ্ক্রিয় করে দিবে। রোগী সেরে উঠতে সময় লাগবে কম। রোগীর বাঁচার সম্ভাবনা বেড়ে যাবে অনেকটা। যেহেতু করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে এখনো কার্যকর ঔষধ বা টিকা আমাদের হাতে নাই, তাই রক্তরস দিয়ে চিকিৎসা করার সুযোগ একটি আশির্বাদ আমাদের জন্য।

আপনি করোনা আক্রান্ত হয়ে সুস্থ হয়েছেন, তবে আপনার শরীরে এন্টিবডি তৈরি হয়েছে বলে ধরে নেয়া যায়। সুস্থ হয়ে উঠার চার সপ্তাহ পর আপনি রক্তরস দান করতে পারবেন। ১৭ থেকে ৬৯ বছর বয়সী সবাই রক্তরস দান করতে পারবেন।

কাজেই প্লাজমা থেরাপি খুবই কার্যকরী একটি থেরাপি। এতে প্লাজমা দানকারীর বিন্দুমাত্র ক্ষতি হয় না। শুধু প্রয়োজন এক্টু সদিচ্ছার। তাই যারা বয়সে যুবক এবং করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর সুস্থ হয়েছেন, তারা দয়া করে এগিয়ে আসুন। সবাই নিজের প্লাজমা দান করে আরেকজনকে সুস্থ করে তুলুন।

আপনি সুস্থ হয়েছেন, আপনাকে অভিনন্দন, আপনি করোনা জয়ী বীর। শুধু একবার চিন্তা করুন: আপনার শরীরের জলীয়কণার বিনিময়ে বেঁচে যেতে পারে সম্ভাব্য মৃত্যুমুখী একজন যাত্রী। এর চেয়ে ভালো অনুভূতি আর কি হতে পারে! সারা জীবন এই অনুভূতিটা থাকবে আপনার।

তাই এই প্লাজমা দান করুন, এটা হবে আপনার জীবনের সর্বশ্রেষ্ঠ দান।

সর্বশেষ
আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত


Copyright ©  BijoyBanglaBD24.com                                 Developed by VIP TECHNOLOGY